দ্রুত ওজন কমানোর উপায় – জেনে নিন ডাক্তারের দেয়া পরামর্শ

দ্রুত ওজন কমানোর উপায় – জেনে নিন ডাক্তারের দেয়া পরামর্শ

ওজন কমানোর উপায় – মানুষের যখন ওজন বেড়ে যায় তখন সে তার শরীরের ওজন নিয়ে চিন্তায় পড়ে যায়। কেননা শরীর বেড়ে যাওয়ার কারণে শরীরে নানা রকম জটিলতা দেখা দেয়। বিভিন্ন কাজ করতে গিয়ে তাকে অসুবিধায় পড়তে হয়। তাই তারা ওজন কমানোর কথা ভেবে থাকেন।

ওজন কমানোর জন্য তারা বিভিন্ন পদ্ধতি অবলম্বন করে থাকে। তাছাড়া তারা প্রচুর অর্থ ব্যয় করে ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে থাকে। আজ আমি আপনাদের ওজন কমানোর কিছু সহজ উপায় সম্পর্কে জানাবো। জেনে নিন শরীর কমানোর সহজ উপায়।

দ্রুত ওজন কমানোর উপায়

ওজন কমানোর জন্য একেক জন একেক রকমের পদ্ধতি অবলম্বন করে থাকে। ওজন কমানোর বিভিন্ন উপায় রয়েছে। ব্যায়াম হচ্ছে ওজন কমানোর সবচেয়ে সুন্দর মাধ্যম। আপনি যদি প্রতিনিয়ত ও শারীরিক কসরত করেন তাহলে আপনার শরীরের ওজন কমে যাবে। তাছাড়া আপনাকে শরীরের ওজন কমানোর জন্য খাবার নিয়ম কারণ করে খেতে হবে।

আপনি যদি একটি নির্দিষ্ট নিয়ম এর মাধ্যমে জীবন পরিচালনা করতে পারেন তাহলে আপনি শরীরের ওজন কমাতে পারবেন। এছাড়াও শরীরের ওজন কমানোর জন্য কিছু খাবার রয়েছে যা খেলে শরীরের ওজন কমে যায়। শরীরের ওজন কমানোর জন্য লেবু অন্যতম মাধ্যম। আপনি যদি প্রতিদিন লেবুর রস খেয়ে থাকেন তাহলে আপনার শরীরের ওজন এমনিতেই কমে যাবে।

ওজন কমানোর সহজ উপায়

ওজন কমানোর বিভিন্ন উপায় রয়েছে। যার মধ্যে ব্যায়াম করা ও কিছু খাবার খাওয়া থেকে বিরত থাকা অন্যতম। চলুন জেনে নেই ওজন কমানোর সহজ উপায় গুলো।

কার্বোহাইড্রেট যুক্ত খাবার পরিহার

বেশি ক্যালরিযুক্ত খাবার খেলে স্বাস্থ্য বৃদ্ধি পায়। তাই স্বাস্থ্য কমানোর জন্য ক্যালরি যুক্ত খাবার খাওয়া অত্যন্ত জরুরী। ক্যালরী বা কার্বোহাইড্রেট যুক্ত খাবার আমাদের শরীরে অতিরিক্ত স্বাস্থ্য বৃদ্ধি করে। তাই আমাদের ক্যালরি যুক্ত খাবার কম খেলে বা পরিহার করে প্রচুর পরিমাণে শাকসবজি বা আঁশ জাতীয় খাবার খাওয়া উচিত।

আঁশযুক্ত খাবার খেলে আপনার শরীরে ক্ষুধার কম লাগবে। ফলে আপনার শরীরের শক্তি যোগান এর জন্য তখন শরীর সঞ্চিত সকল ফ্যাট থেকে শক্তি ব্যবহার করবে। এতে আপনার শরীরের ফ্যাট কমতে থাকবে।

লাল আটা ক্ষুধা কম লাগাতে সাহায্য করে এবং হজমক্রিয়া ধীরে ধীরে হয়। ফলে আপনার ফ্যাট যুক্ত ভাজাপোড়া খাবারের প্রতি আকর্ষণ কমে যায়। তাই কার্বোহাইড্রেট যুক্ত খাবার পরিহার করা প্রথম এবং শ্রেষ্ঠ পন্থা শরীরের ওজন কমানোর জন্য।

প্রচুর পরিমাণে শাকসবজি খাওয়া

ওজন কমানোর সবচেয়ে বড় উপায় হচ্ছে প্রচুর পরিমাণে শাকসবজি খাওয়া। শাকসবজি আপনাকে স্বাস্থ্যকর থাকতে সাহায্য করবে। সবুজ শাকসবজি পুষ্টিতে ভরপুর এবং এতে কম পরিমাণে ক্যালরি থাকে।

কম ক্যালরি আপনার দেহকে স্লিম হতে সাহায্য করবে এবং পুষ্টিমান আপনার দেহকে শক্তিশালী করবে। ফলে আপনি অতি দ্রুত সুস্থ স্বাভাবিক এবং কম ওজন মেয়ের দেহওয়ালা লোক হয়ে যাবেন।

খাওয়ার তেল হিসেবে সাধারণ তেল ব্যবহার না করে অলিভ অয়েল অথবা অ্যাভোকাডো অয়েল ব্যবহার করুন। এতে আপনার শরীরে প্রয়োজনীয় চর্বির বেশি জমা হবে না। ফলে আপনি চলবে জনিত সকল ওজনের মূল উৎস বন্ধ করে ফেলতে পারবেন।

নিয়মিত ব্যায়াম করা

ব্যায়াম হচ্ছে স্বাস্থ্যকর থাকার একটি সবচেয়ে প্রয়োজনীয় ও উপকারী কাজ। দ্রুত ওজন হ্রাসের জন্য ব্যায়ামের কোন বিকল্প নেই। নিয়মিত ভোরবেলা দৌড়ানো ওজন হ্রাসের জন্য সবচেয়ে ভালো একটি ব্যায়াম।

এছাড়াও ভারোত্তোলন ও বিভিন্ন রকমের ব্যায়াম রয়েছে যেগুলোর মাধ্যমে আপনি অতি সহজেই আপনার ওজন বা মোটা স্বাস্থ্য স্বাভাবিক করে ফেলতে। তাই সুস্বাস্থ্যের অধিকারী হতে ব্যায়াম করা অত্যন্ত জরুরী।

মেয়েদের ওজন কমানোর উপায়

অনেকেই প্রশ্ন করে থাকেন কিভাবে মেয়েদের ওজন কমানো যায়? আমি আজকে আপনাদের মেয়েদের ওজন কমানোর সহজ উপায় নিয়ে আলোচনা করব। মেয়েদের ওজন কমানোর জন্য সবচেয়ে কার্যকরী উপায় হচ্ছে দড়ি লাফ খেলা। তাছাড়াও অনেক শারীরিক কসরত রয়েছে যা করলে খুব দ্রুত শরীরের ওজন কমানো যায়।

আরো পড়ুন – মেছতা দূর করার উপায় – দ্রুত কার্যকরী ঘরোয়া উপায়

 

তাছাড়া দেখা যায় যে মেয়েরা সর্বদাই বেশি মসলাযুক্ত খাবার খেতে পছন্দ করে। বাইরের খাবার যা তাদের শরীরের ওজন বাড়িয়ে দেয়। তাছাড়া মেয়েরা ফাস্টফুড খেতে বেশি পছন্দ করে। এটির ওজন বাড়াতে ভূমিকা রাখে। তাই মেয়েদের শরীরের ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য তাকে অবশ্যই ফাস্টফুড জাতীয় খাবার থেকে বিরত থাকতে হবে।

তাছাড়া মসলাযুক্ত খাবার খাওয়া পরিহার করতে হবে। আর ওজন কমানোর জন্য অবশ্যই প্রতিদিন অন্তত দুটি করে লেবুর রস খেতে হবে। কেননা লেবুর রস মানুষের শরীরের ওজন কমাতে খুবই কার্যকরী। তাই নিয়মিত লেবুর রস খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলুন যদি আপনি ওজন কমাতে চান।

ওজন কমানোর ঔষধ

অনেকেই ওজন কমানোর ঔষধ নিয়ে গুগলে সার্চ দিয়ে থাকেন। প্রকৃতপক্ষে ওজন কমানোর কোনো ঔষধ নেই। যদি ওজন কমানোর কোন ঔষধ তৈরি হতো তাহলে পৃথিবীতে মোটা মানুষ থাকত না। যদি কেউ আপনাকে বলে থাকে যে ওজন কমানোর ঔষধ আছে তাহলে সে আপনাকে ভুল তথ্য দিয়েছে। আপনাদের শরীরের ওজন কমাতে চান তাহলে উপরে দেয়া নিয়মকানুন মেনে চলুন। এমনিতেই আপনার শরীরের ওজন কমে যাবে।

Maimuna Khan

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *