আর্জেন্ট পাসপোর্ট করার নিয়ম ২০২৩ – ই পাসপোর্ট করার নিয়ম

আর্জেন্ট পাসপোর্ট করার নিয়ম ২০২৩ – ই পাসপোর্ট করার নিয়ম

অনেক সময় আমাদের প্রয়োজনে আর্জেন্ট পাসপোর্ট করার দরকার হয়। পাসপোর্ট এর দরকার যখন হয় যখন আমরা অন্য কোন দেশে যেতে চাই। পাসপোর্ট ব্যতীত আমরা অন্য কোন দেশে প্রবেশ করতে পারবোনা। অনেক সময় শারীরিক অসুস্থতার জন্য আমাদের দেশের বাইরের ডাক্তার দেখানোর প্রয়োজন হয়। তখন ইমার্জেন্সি পাসপোর্ট তৈরির জন্য মানুষ তৎপর হয়ে পড়ে। আজকের এই পোষ্টে আমি আর্জেন্ট পাসপোর্ট করার নিয়ম তুলে ধরবো।

আপনারা যারা বেড়ানোর উদ্দেশ্যে অথবা মেডিকেল ট্রিটমেন্ট এর জন্য দেশের বাইরে যেতে চাচ্ছেন এবং আপনাদের আর্জেন্ট পাসপোর্ট তৈরি করার প্রয়োজন তাদের জন্য আজকের এই পোস্ট। আজকের এই পোস্টে আপনি আর্জেন্ট পাসপোর্ট করার নিয়ম জানতে পারবেন এবং সেই সাথে আর্জেন্ট পাসপোর্ট করতে কত টাকা খরচ হয় তা জানতে পারবেন। এছাড়া জানতে পারবেন আর্জেন্ট পাসপোর্ট করতে কি কি প্রয়োজন।

আর্জেন্ট পাসপোর্ট করার নিয়ম

আর্জেন্ট পাসপোর্ট করতে আপনাকে ই -পাসপোর্ট করতে হবে। ই-পাসপোর্ট হল ইলেকট্রনিক পাসপোর্ট। বর্তমান যুগ তথ্য প্রযুক্তির হওয়ায় প্রায় সবকিছু অনলাইনে পাওয়া যায়। বর্তমানে কি পাসপোর্ট এর সমস্ত তথ্য অনলাইনে থেকে আপনি ঘরে বসে দেখতে পারবেন। সাধারণ পাসপোর্ট এর ডিজিটাল রূপান্তর হলো ই-পাসপোর্ট। ই পাসপোর্ট তৈরির জন্য আপনাকে কিছু নিয়ম অনুসরণ করতে হবে।

আপনারা যারা দ্রুত পাসপোর্ট তৈরি করতে চাচ্ছেন তাদের জন্যই ই-পাসপোর্ট উত্তম। আপনি যদি আর্জেন্ট পাসপোর্ট করতে চান তাহলে অনলাইনে ই- পাসপোর্ট এর জন্য আবেদন করেন। ই-পাসপোর্ট 15 দিনের মধ্যে হয়ে যায়। সুতরাং বুঝতেই পারছেন আপনি খুবই অল্প দিনের মধ্যে পাসপোর্ট পেয়ে যাবেন।

ই পাসপোর্ট করার নিয়ম

ই পাসপোর্ট করার জন্য প্রথমে আপনাকে গুগল সার্চে গিয়ে www.epassport.gov.bd লিখে সার্চ করতে হবে। এরপর এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে সেখানে আপনার ভোটার আইডি কার্ডের সকল তথ্য দিতে হবে। তবে মনে রাখবেন পাসপোর্ট করার সময় অবশ্যই আপনার তথ্যগুলো ভুল দেওয়া যাবে না। আপনি যদি কোনোক্রমে ভুল করে থাকেন তাহলে আপনার ই-পাসপোর্টে অসুবিধা হবে।

এর জন্য সময় নিয়ে কাজ করা ভালো। আপনার সামনে যে ফর্ম আসবে তা মনোযোগ সহকারে আইডি কার্ড দেখে সঠিক তথ্য দিয়ে পূরণ করতে হবে। আর আপনার যদি পূরণ করতে অসুবিধা মনে হয় তাহলে অভিজ্ঞ কোনো ব্যক্তির দ্বারা আবেদন করে নিবেন। আর কি পাসপোর্ট আবেদনের .১০ থেকে ১৫ দিনের মধ্যে আপনি পাসপোর্ট পেয়ে যাবেন যদি সব ঠিক থাকে।

ই পাসপোর্ট করার প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

  • ই পাসপোর্ট আবেদনের ফরম।
  • ভোটার আইডি কার্ডের ফটোকপি।
  • নাবালক হয়ে থাকলে পিতা-মাতার ভোটার আইডি কার্ডের ফটোকপি।
  • ঠিকানার সত্যতা স্বরূপ বিদ্যুৎ বিলের কাগজ।
  • পড়বে যদি পাসপোর্ট করে থাকেন তার ফটোকপি।
  • চারিত্রিক সনদপত্র ও নাগরিক সনদপত্র।

ই পাসপোর্ট করতে কত টাকা লাগে

পাসপোর্ট এর মেয়াদ অনুসারে টাকা নির্ভর করে। আপনি যদি ই পাসপোর্ট করতে চান ৫ বছর মেয়াদ তাহলে আপনার খরচ পড়বে ৪৫০০ টাকা। আর যদি আপনি দশ বছর মেয়াদে করতে চান তাহলে আপনার খরচ পড়বে ১০০০০ টাকা। সুতরাং বুঝতেই পারছেন মেয়াদ যত বেশি হবে খরচের পরিমাণ তত বেশি হবে।

ই-পাসপোর্ট ফি কত

৫ বছর মেয়াদি ই-পাসপোর্ট করতে খরচ হয় ৪৫০০ টাকা ও ১০ বছর মেয়াদে খরচ হয় ১০০০০ টাকা। তাছাড়া বাড়তি কোন খরচ নেই। আপনি যদি নিজে থেকে অনলাইনে আবেদন করতে পারেন তাহলে আপনার আর কোন খরচ হবে না। আর যদি আপনি বাইরে থেকে করেন সেক্ষেত্রে আপনার আরও .২০০ টাকা খরচ বেশি হবে।

ই পাসপোর্ট আবেদন

ই-পাসপোর্ট আবেদন করার জন্য প্রথমে আপনাকে www.epassport.gov.bd এই ওয়েব সাইটে প্রবেশ করে নিতে হবে। এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার পর আপনার সামনে একটি ফর্ম আসবে। আপনাকে ওই ফর্মে দেওয়া সমস্ত তথ্য সঠিকভাবে পূরণ করতে হবে। আপনি যদি সঠিকভাবে তা পূরণ করেন ১০ থেকে ১৫ দিনের মধ্যে পাসপোর্ট পেয়ে যাবেন।

Read More

চট্টগ্রাম থেকে সাজেক ভ্রমণ গাইড, যাওয়ার খরচ ও রিসোর্ট খরচ

ব্যবসা লোন বাংলাদেশ – বিভিন্ন ব্যাংক থেকে ব্যবসা লোন

ফেসবুকে অনলাইন ব্যবসা

মালদ্বীপ ভিসার দাম কত , মালদ্বীপ যেতে কত টাকা লাগে?

Maimuna Khan

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *