সেরা ইসলামিক উক্তি

সেরা ইসলামিক উক্তি

আল্লাহ তাআলার মনোনীত ধর্ম ইসলাম হলো শান্তির ধর্ম। পৃথিবীতে একমাত্র শান্তির ধর্ম হিসেবে ইসলামকে বিবেচনা করা হয়। ইসলাম এমন এক শান্তির ধর্ম যেখানে নেই কোন কোলাহল। এখানে শুধু আল্লাহতালা শান্তির বাণী প্রচার করেছেন। এই ধর্মে কোন হিংসা বা অহংকার। আপনি যদি ইসলামকে আঁকড়ে ধরেন তাহলে দেখবেন ইসলাম শান্তির ধর্ম। চলুন এই শান্তির ধর্মের কিছু গুরুত্বপূর্ণ উক্তি জেনে নেয়া যাক।

সেরা ইসলামিক উক্তি

  • হিংসা হইতে দূরে থাকো । কেননা হিংসা নাকি কে ধ্বংস করে দেয় । যেমন আগুন শুকনা কাঠ কে – মহানবী (সা:)

  • তোমরা অধিক পরিমাণে মৃত্যুকে স্মরণ করো। কেননা মৃত্যু দুনিয়ার সাদ কে ধ্বংস করে দেয়  – মহানবী (সা:)

  • কই ঘরে রহমতের ফেরেশতা প্রবেশ করে না  , যে ঘরে কুকুর বা জীব জন্তুর ছবি থাকে – মহানবী (সা:)

  • টাখনুর নিচে পায়জামা বা লুঙ্গি দাঁড়া ঢাকা থাকে তাহা দোযখে যাবে – মহানবী (সা:)

  • ছবি বানানো ওয়ালা গণ আল্লাহ তাআলার নিকট শাস্তি ভোগ করিবে – মহানবী (সা:)

  • যে ব্যক্তি কোন মুসলমানের দোষ গোপন রাখবে , আল্লাহতালা দুনিয়া ও আখেরাতে তাহার দোষ গোপন রাখবেন – মহানবী (সা:)

  • দুনিয়াতে এমনিভাবে থাকো যেমন কোন মুসাফির বা প্রতীক থাকে – মহানবী (সা:)

  • যে ব্যক্তি কোন ভাল কাজের পথ দেখায় সে ওই ভালো কাজ করার মতো সোয়াব – মহানবী (সা:)

  • যে নম্রতা হইতে বঞ্চিত সে কল্যাণ থেকে বঞ্চিত – মহানবী (সা:)

  • ওই ব্যক্তির বীর নয় , যে লোকদেরকে ভূলুণ্ঠিত করে , বরং ঐ ব্যক্তি বীর , যেকোনো ক্রোধের সময় নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারে – মহানবী (সা:)

  • যদি তোমার লজ্জা না থাকে , তাহলে যা ইচ্ছা তাই করতে পারো – মহানবী (সা:)

  • আল্লাহ তাআলার নিকট ওই আমল সবচেয়ে বেশি প্রিয় , যা সদা সর্বদা করা হয় যদিও তা অল্প হয় – মহানবী (সা:)

  • ওই ব্যক্তি সফল , যিনি ইসলাম গ্রহণ করেছেন এবং পরিমাণমতো তাহার রিজিক মিলিয়েছে ,আর আল্লাহ তা’আলা তাহাকে তাহার রুচির মধ্যে সন্তুষ্টি দান করিয়াছেন – মহানবী (সা:)

  • তোমাদের কেহ ততক্ষণ পর্যন্ত প্রকৃত মুমিন হতে পারবে না , যতক্ষণ পর্যন্ত নিজের ভাইয়ের জন্য ওই জিনিস পছন্দ না করবে , জাহা সে নিজে পছন্দ করে – মহানবী (সা:)

  • ওই ব্যক্তি বেহেশতে প্রবেশ করতে পারবে না , যাহার প্রতিবেশী তার অত্যাচার হইতে নিরাপদ নয় – মহানবী (সা:)

  • কবিরা গুনাহ হইল , আল্লাহ তা’আলার সাথে কাহাকেও করা, পিতা-মাতার অবাধ্য হওয়া , অন্যায় ভাবে হত্যা করা এবং মিথ্যা সাক্ষী দেওয়া – মহানবী (সা:

  • বিবাদ সৃষ্টিকারী ব্যক্তি আল্লাহ তাআলার নিকট সবচেয়ে বেশি ঘৃণিত – মহানবী (সা:)

  • যে ব্যক্তি একবার আমার উপর দরুদ পাঠ করবে আল্লাহ্ তায়ালা তাহার উপর দশবার রহমত পাঠান – মহানবী (সা:)

  • যেই ব্যক্তি ইলমে দ্বীন শিক্ষার উদ্দেশ্যে কিছু পথ অতিক্রম করবে , তাহার ওই পথ অতিক্রম করার দ্বারা আল্লাহ তাআলা তাহার জন্য বেহেস্তের পথ সহজ করিয়া দিবেন – মহানবী (সা:)

  • তোমরা ফরজ এবং কুরআন মাজীদ শিক্ষা করো এবং মানুষকে শিক্ষা দাও আমি চিরকাল থাকবো না – মহানবী (সা:)

  • মুমিনদের মধ্যে পরিপূর্ণ ঈমানদার ওই ব্যক্তি যিনি চরিত্রবান – মহানবী (সা:)

  • যেই স্ত্রীলোকের মৃত্যু এমন অবস্থায় হইবে যে তাহার স্বামী তাহার উপর সন্তুষ্ট ছিলেন সে বেহেশতী – মহানবী (সা:)

  • যে স্ত্রীলোক পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করিবে এবং রমজান মাসের রোজা রাখিবে এবং লজ্জাস্থানের হেফাজত করবে এবং স্বামীর এতায়াত করবে , তবে সে বেহেশতের যেকোনো ইচ্ছা প্রবেশ করিতে পারিবে – মহানবী (সা:)

     

  • ব্যবহার নিয়ে উক্তি , স্ট্যাটাস ও কবিতা

Maimuna Khan

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *