হিটলারের বিখ্যাত কিছু উক্তি ও অমর বাণী

হিটলারের বিখ্যাত কিছু উক্তি ও অমর বাণী

হিটলার অস্ট্রিয়ায় জন্মগ্রহণকারী একজন জার্মানি রাজনীতিবিদ ছিলেন। তিনি হাজার 1933 সাল থেকে হাজার 1945 এর পর্যন্ত জার্মানির একজন ডিরেক্টর হিসেবে কাজ করতেন। তিনি নাজি পার্টির হয়ে ক্ষমতায় ছিলেন। বর্তমানে প্রায় অনেক মানুষ তার ক্ষমতার কথা জানে। আর বেশিরভাগ মানুষ তার নাম শুনলেই মনের মধ্যে এক নেগেটিভ চিন্তা ভাবনা চলে আসে। কারণ তিনি এত মানুষ মেরেছিলেন যে মানুষ তার নাম শুনলেই এখন ঘৃণা করা শুরু করে। তবে মৃত্যুর পূর্বে তিনি অসংখ্য উক্তি ও বাণী মানুষের উদ্দেশ্যে রেখে গেছেন।

আমাদের আজকের এই পোস্টে আমরা সেই কুখ্যাত হিটলার নিয়ে কথা বলবো। আজকের এই পোস্টে আমরা তুলে ধরব কূখ্যাত হিটলার এর কিছু অসাধারণ উক্তি বাণী। আপনারা যারা অনলাইনে হিটলারের উক্তি বাণী খুঁজছেন আজকের পোস্টটি তাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আশা করি আজকের পোস্টটি আপনাদের ভালো লাগবে। নিজে আমি দিয়ে দিয়েছি হিটলারের বিখ্যাত কিছু উক্তি ও বাণী।

হিটলারের উক্তি

> যারা বাঁচতে চায়, তারা লড়াই করে বাঁচুক। আর যারা লড়তে চায় না, তাদের বাঁচার কোন অধিকার নেই।

> জীবন আয়নার মত। তুমি ভেংচি কাটলে এটাও তোমাকে ভেঙ্গাবে, তুমি হাসলে এটা তোমাকে অভিবাদন জানাবে।

> সন্ত্রাস, নাশকতা, হত্যা এবং বিস্ময়ের মধ্য দিয়ে শত্রুর মনোবল ভেঙে দাও, এটাই যুদ্ধের ভবিষ্যৎ।

> যদি বড় কোন মিথ্যাকে প্রতিষ্ঠিত করতে চাও, সহজ ভাবে এটাকে বলো, বারবার বলতে থাকো, একসময় দেখবে সবাই এটা বিশ্বাস করতে শুরু করেছে।

> যখন তুমি মারা যাবা তখন তোমার ব্যাংকে যে পরিমান টাকা থাকবে সেটা হল ওই টাকা যা তুমি তোমার প্রয়োজনের চেয়ে অতিরিক্ত কাজ করে আয় করেছ।

> আমি আপনাকে কখনও ভালবাসতে না বলে যুদ্ধ করতে বলি। কারণ যুদ্ধে হয় আপনি বাঁচবেন না হয় মরবেন। কিন্তু ভালবাসাতে না পারবেন বাঁচতে; না মরতে।

> মিথ্যা যত বড়, লোকে তা বিশ্বাস করার সম্ভাবনা তত বেশি।

> অপছন্দের চেয়ে ঘৃণার স্থায়িত্ব বেশি।

> একজন খ্রিস্টান হিসেবে প্রতারিত হওয়া আমার কর্তব্য নয়, কর্তব্য হলো সত্য এবং ন্যায়ের জন্য যুদ্ধ করা।

> শক্তি প্রতিরোধে নয়, আক্রমণেই প্রকাশিত হয়।

হিটলারের অমর বাণী

> আমি চাইলে সব ইহুদীদের হত্যা করতে পারতাম। কিন্তু কিছু ইহুদী বাচিয়ে রেখেছি,,এই জন্যে যে, যাতে পৃথিবীর মানুষ বুঝতে পারে, আমি কেন ইহুদী হত্যায় মেতেছিলাম’।

> যদি সূর্যের মত আলো ছড়াতে চাও আগে এর মত জ্বলতে হবে।

> যদি কোন মিথ্যাকে তুমি বারবার এবং সাবলীলভাবে বলতে পারো তবেই তা বিশ্বাসযোগ্য হবে।

> মানুষ হয়ত সবসময় তোমার মুখের কথায় বিশ্বাস করবে না, কিন্তু তোমার কাজে তারা সবসময়ই বিশ্বাস করবে।

> যার কোন সমস্যা নেই, তাকে কখনো বিশ্বাস করবে না।

> একজন বড় মিথ্যাবাদী, একজন বড় জাদুকরও।

> যে কোন ঝামেলা ছাড়াই জেতে সে বিজেতা, কিন্তু যে শত ঝামেলা সামলে জেতে সে ইতিহাস রচয়িতা।

শেষ কথা

আমাদের এই ওয়েবসাইটে নতুন সকল তথ্য, বিনোদন, রেজাল্ট, রুটিন, টিপস, উক্তি, স্ট্যাটাস ও টেকনোলজি নিয়ে প্রতিনিয়ত পোস্ট করে থাকে। আপনারা যারা প্রতিনিয়ত নতুন নতুন তথ্য পেতে ইচ্ছুক তারা আমাদের ওয়েবসাইট ফলো করতে পারেন। আর যারা আমাদের ওয়েবসাইটের তথ্য গুলো পছন্দ করবেন তারা অবশ্যই বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন। ধন্যবাদ।

Read More

স্মার্ট আইডি কার্ড চেক অনলাইন ও ডাউনলোড

কাশফুল নিয়ে ক্যাপশন, কবিতা ও গান

Maimuna Khan

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *