ডিজিটাল মার্কেটিং কি? ডিজিটাল মার্কেটিং শেখার উপায়

ডিজিটাল মার্কেটিং কি? ডিজিটাল মার্কেটিং শেখার উপায়

ডিজিটাল মার্কেটিং কি? ডিজিটাল মার্কেটিং শেখার উপায় – ডিজিটাল মার্কেটিং নামটি এখন সবার কাছে চেনা। বর্তমানে ডিজিটাল মার্কেটিং এর নাম শুনলেই মানুষের মনে উৎফুল্ল ভাব চলে আসে। অনেকে আছে ডিজিটাল মার্কেটিং নিয়ে কৌতুহল। যারা ডিজিটাল মার্কেটিং শেখার প্রতি কৌতূহল দেখায় এবং ডিজিটাল মার্কেটিং এ ক্যারিয়ার গড়তে চায়।

আজকে এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আমি আপনাদের ডিজিটাল মার্কেটিং এর সমস্ত বিষয় ভালোভাবে বুঝিয়ে দেবো। যারা ডিজিটাল মার্কেটিং এর সম্পূর্ণ কোর্স ফ্রিতে করতে চান তারা সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি ভালভাবে পড়ুন। আশা করি সম্পূর্ণ আর্টিকেল ভালোভাবে পড়ার পরে আপনি ডিজিটাল মার্কেটিং সম্বন্ধে পুরোপুরি ধারণা পেয়ে যাবেন। চলুন দেরী না করে মূল কথায় আসা যাক।

ডিজিটাল মার্কেটিং কি?

ডিজিটাল মার্কেটিং বলতে অনলাইনে কোন পণ্যের প্রচার করাকে বুঝায়। এ পণ্যের প্রচার নানাভাবে করা যেতে পারে। হতে পারে সেটা ফেসবুকের মাধ্যমে, সার্চ ইঞ্জিনের মাধ্যমে, সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে, হতে পারে ইমেইল মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে। তাছাড়া টুইটার মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে পণ্য বেচাকেনা জন্য প্রচার করা যায়।

ডিজিটাল মার্কেটিং শেখার উপায়

ডিজিটাল মার্কেটিং শিখতে হলে অবশ্যই আপনাকে সোশ্যাল মিডিয়া সম্বন্ধে জানা থাকতে হবে। আপনি যদি সোশ্যাল মিডিয়া সম্পর্কে ভাল অবগত হন তাহলে ডিজিটাল মার্কেটিং সম্পর্কে আপনি যত বেশি অবগত হবেন। কেননা ডিজিটাল মার্কেটিং সাধারণত অনলাইনে হয়ে থাকে।

আর বর্তমানে বেশিরভাগ মানুষ ফেসবুকে সময় ব্যয় করে থাকে। আর ফেসবুকের মাধ্যমে ডিজিটাল মার্কেটিং সবচেয়ে ভালো ভাবে করা যায়। আপনি যদি কোন কোন পণ্যের ছবি ও দাম দিয়ে ফেসবুকে পোস্ট করেন তবে তা বেশি বেশি মানুষের কাছে পৌছাবে।

আরো পড়ুন – এফিলিয়েট মার্কেটিং কি এবং কিভাবে এটি থেকে টাকা আয় করা যায়?

আর ওই পণ্য যত বেশি মানুষের কাছে পৌছাবে ততবেশি মানুষ তার সম্পর্কে জানতে পারবে এবং দাম সম্বন্ধে জানতে পারবে। এবং অনলাইন থেকে মানুষ তা অর্ডার করবে। এর জন্য ডিজিটাল মার্কেটিং খুব একটা কঠিন বিষয় নয় শুধু আপনাকে অনলাইন সম্পর্কে ধারনা বেশি রাখতে হবে। এবং জানা থাকতে হবে কিভাবে মানুষকে আকর্ষণ করা যায়।

বর্তমানে অনেক মানুষ আছেন যারা ডিজিটাল মার্কেটিং শিখতে চাই। কিন্তু বেশিরভাগ মানুষই প্রকার গাইডলাইনের অভাবে ডিজিটাল মার্কেটিং শিখতে পারে না। তবে তারা যদি প্রপার গাইডলাইন পায় তবে অবশ্যই ডিজিটাল মার্কেটিং সম্বন্ধে জানতে পারবে এবং শিখতে পারবে।

ডিজিটাল মার্কেটিং অত্যন্ত সহজ একটি বিষয়। ধরেন আপনি একটি পণ্য অনলাইনে বিক্রি করবেন। এর জন্য প্রথমে আপনার প্রয়োজন এটার মার্কেটিং করা। পণ্যের মার্কেটিং করতে গেলে অবশ্যই আপনাকে কোন কিছু সাহায্য নিতে হবে। এর জন্য আপনি বেছে নিতে পারেন ফেসবুক, টুইটার, ইউটিউব, হোয়াটসঅ্যাপ, সার্চ ইঞ্জিন সহ যত সোসিয়াল মিডিয়া রয়েছে।

আরো পড়ুন – ফরেক্স ট্রেডিং কি? ফরেক্স ট্রেডিং করে আয়।

কেননা বর্তমান যুগ হচ্ছে ইন্টারনেটের যুগ। বর্তমানে বেশিরভাগ মানুষই সোশ্যাল মিডিয়ায় সময় ব্যয় করে থাকে। এর কারণে পণ্য বিক্রি করতে গেলে অবশ্যই সোশ্যাল মিডিয়ায় থাকা মানুষদের কে টার্গেট করতে হবে।

আপনি যদি সোশ্যাল মিডিয়ায় থাকা মানুষদের টার্গেট করে নিতে পারেন তবে আপনি আপনার পণ্যের মার্কেটিং বেশি করে করতে পারবেন। আপনি আপনার পন্যের মার্কেটিং যত ভালোভাবে করতে পারবেন পণ্য তত বিক্রি করতে পারবেন। আপনি আপনার পন্য যত বিক্রি করতে পারবেন আপনি তত মুনাফা অর্জন করতে পারবেন।

ডিজিটাল মার্কেটিং কেন শিখব

বাংলাদেশে বর্তমানে অনেক ছেলেমেয়ে বেকার। বেকারত্ব তাদেরকে গ্রাস করে ফেলছে। এর জন্য তারা অর্থ উপার্জনের জন্য নতুন নতুন পথ বেছে নিচ্ছে। তাই যারা বেকার রয়েছেন তারা ডিজিটাল মার্কেটিং করে অর্থ উপার্জন করতে পারেন। ডিজিটাল মার্কেটিং অর্থ উপার্জনের জন্য একটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ পথ।

ডিজিটাল মার্কেটিং করে ঘরে বসে অতি সহজেই অনেক অর্থ প্রদান করা যেতে পারে। আপনার যদি অনলাইন সম্পর্কে ভাল ধারনা থাকে তাহলে ডিজিটাল মার্কেটিং করে আপনি অনেক অর্থ উপার্জন করতে পারবেন। তাই আমরা যারা বেকার রয়েছি তারা অতি দ্রুত ডিজিটাল মার্কেটিং সম্পর্কে অবগত হয়ে ডিজিটাল মার্কেটিং করে অর্থ উপার্জন করতে পারি।

মোবাইল দিয়ে ডিজিটাল মার্কেটিং

বর্তমানে ছোট থেকে বড় সবাই মোবাইল চালিয়ে থাকে। এমনকি বাংলাদেশ শতকরা 96 ভাগ মানুষ ফেসবুক ব্যবহার করে থাকে। আমরা যারা ফেসবুক ব্যবহার করি তারা খুব সহজেই মোবাইল দিয়ে ডিজিটাল মার্কেটিং করতে পারি।

যেতে বেশির ভাগ মানুষ ফেসবুক ব্যবহার করে তাই ফেসবুকের মাধ্যমে আমরা ডিজিটাল মার্কেটিং করতে পারি। ধরেন আপনার একটি ফেসবুক অ্যাকাউন্ট আছে। এখন আপনি যদি অন্য কোন পণ্যের মার্কেটিং করতে চান, তাহলে ওই পণ্যের ছবি ফেসবুকে দামসহ ছেড়ে যদি তা বুষ্ট করেন তবে তা বেশি বেশি মানুষের কাছে পৌঁছাবে।

ফলে মানুষ আপনার পণ্যের প্রতি অবগত হবে। তখন তারা তা অনলাইনে অর্ডার করবে। এভাবে মোবাইল দিয়ে আপনি ডিজিটাল মার্কেটিং করতে পারেন। তাই শুধু বসে থেকে সময় নষ্ট না করে মোবাইল দিজিতাল মারকেটিং করে আপনি অর্থ উপার্জন করতে পারেন।

ডিজিটাল মার্কেটিং বাংলাদেশ

এখন বাংলাদেশের অনেক মানুষ ডিজিটাল মার্কেটিং সম্বন্ধে অবগত হয়েছেন। তারা এখন ডিজিটাল মার্কেটিং করে অর্থ উপার্জন করতে চাই। বাংলাদেশের অনেক ফুড কোম্পানি রয়েছে যারা তাদের পণ্যের মার্কেটিং করানোর জন্য মানুষদের ব্যবহার করে থাকি। আপনি তাদের পণ্য ডিজিটাল মার্কেটিং এর মাধ্যমে বিক্রি করে দিতে পারলে, তারা তাতে কি আপনাকে কমিশন দিয়ে থাকে। এভাবে আপনি তাদের পণ্য বিক্রি করে অর্থ উপার্জন করতে পারেন।

Maimuna Khan

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *