এফিলিয়েট মার্কেটিং কি এবং কিভাবে এটি থেকে টাকা আয় করা যায়?

এফিলিয়েট মার্কেটিং কি এবং কিভাবে এটি থেকে টাকা আয় করা যায়?

অনেকেরই মনের মাঝে প্রশ্ন জাগে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কি এবং এটি থেকে কিভাবে টাকা আয় করা যায়? যদি আপনার মনের এই ধরনের প্রশ্ন থাকে তাহলে আপনি আপনার সকল প্রশ্নের উত্তরেই পোস্ট এর মাঝে পেয়ে যাবেন। এখানকার যুগ হচ্ছে অনলাইনের যুগ। বর্তমানে অনেকেই অনলাইন বিজনেস করে থাকে। অনলাইনের মাধ্যমে অনেকেই ব্লগিং করে অর্থ উপার্জন করছে। তাছাড়া অনেকেই ই-কমার্স সাইট এর মাধ্যমে কেনাবেচা করে অর্থ উপার্জন করছে। চলুন এবার অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং নিয়ে আলোচনা করা যাক।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কি?

যারা অনলাইন ব্যবসা করে থাকেন তাদের অ্যাপলেট মার্কেটিং সম্বন্ধে জানা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আর যারা অ্যাথলিট শুরু করতে চায় তাদের সনাক্ত এফিলিয়েট মার্কেটিং কিভাবে কাজ করে তা আরও গুরুত্বপূর্ণ। যদি কোন কোম্পানীর প্রতিষ্ঠান তাদের পণ্যের বিক্রি বাড়াতে চায় এবং এর জন্য তাদের পণ্যের প্রচার করতে হবে, তবে তাদের অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রাম শুরু করতে হবে।

কেননা অ্যাপলেট মার্কেটিং এর ব্যবসা একটি কমিশন ভিত্তিক ব্যবসা। যদি কোন একজন ব্লগার তার ওয়েবসাইটে সেই প্রোগ্রাম যোগদান করে তখন এই প্রোগ্রামটি শুরু করা কর্মসংস্থান পেপার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের লিংক প্রদান। কলকাতার ওয়েবসাইটের লিংক ব্যবহার করে থাকেন। ফলে ওয়েবসাইট এটা সম্ভব হয় উক্ত লিংক শেয়ারের মাধ্যমে। তখন কিছুটা হলেও উক্ত প্রোডাক্ট সাইটে প্রবেশ করে এবং পণ্য কিনে নেন। তখন বিনিময় সেই কোম্পানি তাকে কিছুটা কমিশন দিয়ে থাকে।

এফিলিয়েট মার্কেটিং থেকে কিভাবে টাকা আয় করা যায়

বর্তমান যুগ অনলাইনের যুগ। অনেক ব্লগার অ্যাপলেট মার্কেটিং এর সাথে যুক্ত হয়ে প্রচুর আয় করছে। আর বর্তমানে অনলাইন থেকে অর্থ উপার্জন হচ্ছে সর্বোত্তম উপায়। আরএফএল এর মার্কেটিং হচ্ছে তার মধ্যে অন্যতম। অ্যাপলেট মার্কেটিং থেকে আয় করতে হলে আমাদের যেকোনো একটি অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রাম এ গিয়ে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে।

অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রাম এ গিয়ে রেজিস্ট্রেশন করার পর তারা আপনাকে একটি লিংক দেবে সেই লিংকটি আপনার ওয়েবসাইটে দিতে হবে। সেইলিং আপনার ওয়েবসাইটের দেয়ার পর যদি সেখান থেকে কোন ভিজিটর ওই অ্যাপলেট সাইটে গিয়ে কোনো কিছু কেনাকাটা করে তবে আপনি সেখান থেকে কিছু প্রফিট পাবেন। আর এটাকে এফিলিয়েট মার্কেটিং বলা হয়ে থাকে।

তবে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং সম্বন্ধে বুঝতে আপনার একটু সময় লাগবে। আরএফএল ইট মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে আপনি অনেক টাকা আয় করতে পারবেন যদি আপনি এ বিষয়ে এক্সপার্ট হয়ে থাকেন। তাই অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করতে হলে আপনাকে আগে এক্সপার্ট হতে হবে। ইউটিউব চ্যানেলের মাধ্যমে এফিলিয়েট মার্কেটিং করা যায়। এখান থেকে বিপুল পরিমাণ অর্থ উপার্জন করা যেতে পারে।

এফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয়

অনলাইনের এই যুগে এফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয় করা একটি সহজ ব্যাপার। বর্তমান যুগের বেশিরভাগ মানুষই অনলাইন এর উপর নির্ভরশীল। দিন যাচ্ছে মানুষ অনলাইনের দিকে ঝুঁকে পড়ছে। মানুষ এখন অনলাইন থেকে কেনাকাটা বেশি পছন্দ করে থাকে।

ফলে তারা তাদের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের জন্য অনলাইনে সার্চ করে থাকে। আর এখন সবকিছুই অনলাইনে পাওয়া যায়। বিভিন্ন কোম্পানি তাদের প্রোডাক্ট এর মার্কেটিং করার জন্য বিভিন্ন ওয়েবসাইট ইউটিউব চ্যানেলের সাথে যোগাযোগ করে থাকে। সেখানে বিভিন্ন কোম্পানি তাদের ওয়েবসাইটের লিঙ্ক সেখানে দেয়।

যদি তাদের ওয়েবসাইটে কোন ভিজিটর এসে কোম্পানির ওয়েবসাইট থেকে কোন কেনাকাটা করে , তখন ওই কোম্পানি তাকে কিছু প্রফিট দিয়ে থাকে। এভাবে এফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয় করা যায়। অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে আপনি বেহিসাব টাকা উপার্জন করতে পারবেন। তাই চাকরির প্রতি বেশী নাজুকে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে আপনি প্রচুর অর্থ উপার্জন করতে পারেন।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কেন করব

আপনারা যারা বেকার রয়েছেন, তারা অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করতে পারেন। কেননা অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করা যায়। আমাদের দেশে বেশির ভাগ মানুষ বেকার অবস্থায় বসে থাকি। আবার এমন অনেক মানুষ রয়েছে যাদের অনলাইন সম্পর্কে কোন জ্ঞান নেই। যাদের অনলাইন সম্পর্কে কিছুটা জ্ঞান রয়েছে তারা খুব সহজেই অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে টাকা উপার্জন করতে পারি। তাই বসে না থেকে এফিলিয়েট মার্কেটিং করে টাকা উপার্জন করা যেতে পারে।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং সাইট

অনেক অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং সাইট রয়েছে। বিভিন্ন দেশের বিভিন্ন ধরনের এফিলিয়েট মার্কেটিং সাইট রয়েছে যা থেকে অর্থ উপার্জন করা সম্ভব। চলুন জেনে নেয়া যাক কিছু অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং সাইট সম্পর্কে।

  • eBay
  • Etsy
  • Amazon Associates
  • GoDaddy
  • WP Engine
  • FlyWheel
  • Kinsta
  • Liquid Web
  • Cloudways
  • NameCheap
  • GreenGeeks
  • Hostinger
  • A2 Hosting
  • HostGator
  • Dreamhost
  • Bluehost
  • CreativeLive
  • Survey Junkie
  • Contena
  • SolidGigs
  • FlexJobs

এফিলিয়েট মার্কেটিং কি হালাল

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং হালাল যদি আপনি যে প্রোডাক্ট এর মার্কেটিং করতেছেন তা যদি হারাম কোন প্রোডাক্ট না হয়। যেমন ধরেন আপনি শুয়োরের মাংস নিয়ে মার্কেটিং করতেছেন। কিন্তু শুয়োরের মাংস ইসলামে হারাম। তাই এই বিষয় নিয়ে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করলে আপনার উপার্জন হারাম হয়ে যাবে। তাই আপনাকে এমন প্রোডাক্টের এফিলিয়েট মার্কেটিং করতে হবে যা হালাল।

তবে অবশ্যই মনে রাখতে হবে প্রোডাক্টের মার্কেটিং করতে গিয়ে কখনো মিথ্যা প্রচার করা যাবে না। যদি আপনি প্রোডাক্ট এর মার্কেটিং করতে গিয়ে প্রোডাক্টের নামে মিথ্যা কোন কথা প্রচার করেন। তবে তা থেকে আয় হারাম হয়ে যাবে। তবে হালাল পন্থায় অ্যাপলেট মার্কেটিং করলে আপনার আয় হালাল হবে।

আরো পড়ুন

Maimuna Khan

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *