প্রাকৃতিক ভাবে ত্বক ফর্সা করার উপায়

প্রাকৃতিক ভাবে ত্বক ফর্সা করার উপায়
প্রাকৃতিক ভাবে ত্বক ফর্সা করার উপায় – প্রত্যেক মানুষই সৌন্দর্যের পুজারী এবং সৌন্দর্য কে ভালবাসে। কিন্তু জন্মগতভাবে আমরা ফর্সা নাও হতে পারে। ফলে অনেক মানুষ শ্যামলা বা কালো হয়ে থাকে। অনেকেই আবার তার নিজের চেহারা নিয়ে সন্তুষ্ট নয়। তাই সে তার নিজের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করতে বিভিন্ন ধরনের ক্রিম বা লোশন ব্যবহার করে থাকে।
বিভিন্ন কারণে মানুষের ত্বকের প্রবলেম হয়ে থাকে। যেমন ধুলাবালি কারণে ত্বক কালো হয়ে যায় এবং রৌদ্রের কারণে ত্বক কালো হয়ে যায়। যখন কোন মানুষের ত্বক কালো হয়ে যায় তখন সে তার ত্বকের সৌন্দর্য করতে ব্যস্ত হয়ে পড়ে। ত্বকের সৌন্দর্য করার জন্য মানুষ বিভিন্ন ধরনের ক্রিম ব্যবহার করে থাকে।
কিন্তু এর মধ্যে কেমিক্যাল মিশ্রিত থাকায় অনেক সময় তারা নানা সমস্যা ভোগে। আজকে আমি আপনাদের ত্বক ফর্সা করার কিছু কার্যকরী উপায় সম্পর্কে জানাবো। যার মাধ্যমে প্রাকৃতিক ভাবে আপনি আপনার চেহারা সুন্দর করতে পারবেন। আরো জানতে সম্পূর্ণ পোস্টটি ভালভাবে পড়ুন।

ত্বক ফর্সা করার উপায়

আপনি যদি প্রাকৃতিক ভাবে আপনার ত্বক ফর্সা করতে চান তাহলে আমাদের দেয়া নিয়ম মেনে চলুন। প্রথমে আপনি কিছু পরিমাণ দই নিবেন। এরপর দইয়ের সাথে মধু ও লেবুর রস মিশিয়ে তা মুখে মাখুন। মুখে মাখার পর 15 মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। মধু আপনার মুখের ত্বক ভেতর থেকে ফর্সা করবে এবং লেবুর রস ও দই আপনার ত্বককে উজ্জ্বল করবে। এভাবে আপনি প্রাকৃতিক উপায়ে আপনার ত্বককে ফর্সা করতে পারবেন। আরো জানতে সম্পূর্ণ পোস্টটি ভালভাবে পড়ুন।

আরো পড়ুন: থানকুনি পাতার উপকারিতা – জেনে নিন এ পাতার সকল গুনাগুন

ত্বক ফর্সা করার ঘরোয়া উপায়

ত্বক ফর্সা করার নানা ধরনের উপায় রয়েছে। এখানে আমি আপনাদের সেই উপায় গুলো সম্পর্কে জানাবো। যার মাধ্যমে আপনি ঘরোয়া উপায়ে আপনার ত্বককে ফর্সা করতে পারবেন। নিচে জেনে নেয়া যাক সেই উপায় গুলো।

বেসন ও লেবু

বেসন ও লেবু দুটি আমাদের বাসায় কম বেশি থাকে। আবার আমরা সকলেই এই দুটি জিনিস সম্পর্কে অবগত। আমরা জানি যে রূপচর্চায় বেসন ব্যবহৃত হয়। আর লেবুতে থাকে ত্বক ফর্সাকারী কার্যকরী ভিটামিন। আপনি যে ত্বক ফর্সা করতে চান তবে লেবু ও বেসনের মিশ্রন দিয়ে প্যাক বানিয়ে ব্যবহার করুন। প্যাক বানাতে আপনি তিন চামচ বেসন এর সাথে 2 চামচ লেবুর রস এবং এক চামচ হলুদ গুড়া ব্যবহার করুন।

এবার এগুলো খুব ভালো করে বাড়িতে নিয়ে মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটি আপনার মুখে মাখিয়ে নিন। এরপর আধাঘন্টা হয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন। এভাবে সাতদিন ব্যবহারের পর আপনি আপনার ত্বকের উজ্জ্বলতা দেখতে পারবেন। এতে আপনার মুখে থাকা দাগ গুলো উঠে যাবে।

টমেটো ও মধু

আপনার ত্বক যদি রোদ্রের কারণে কালো হয়ে থাকে তাহলে টমেটো আর মধু দিয়ে প্যাক বানিয়ে আপনি আপনার মুখে ব্যবহার করতে পারেন। টমেটো ত্বকের পোড়া দাগ উঠাতে সাহায্য করে এবং মধু ত্বককে ভেতর থেকে ফর্সা করে। এ পেস্ট বানাতে আপনাকে টমেটো ব্লেন্ড করে এতে চার চামচ মধু মিশিয়ে নিতে হবে। মিশ্রণটি মুখে মেখে 20 মিনিট পর ধুয়ে নিতে হবে। দেখবেন মুখ সতেজ হয়ে গেছে।

মধু ও লেবুর রস

মধু ও লেবুর রস ত্বক ফর্সা করতে খুবই উপকারী। মধু আর লেবুর রস মিশিয়ে প্যাক বানিয়ে মুখে ব্যবহার করুন। সাত দিন ব্যবহার করার পর আপনার মুখের ত্বকের উজ্জলতা দেখে আপনি নিজেই চমকে যাবেন। এই প্যাক বানাতে আপনাকে দুই চামচ মধু ও 2 চামচ লেবুর রস দিয়ে পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে। এরপর 20 মিনিট মুখে লাগিয়ে তারপর ধুয়ে ফেলুন।

শ্যামলা ত্বক ফর্সা করার উপায়

আপনার যদি শ্যামলা ত্বক থাকে তাহলে তা ফর্সা করার জন্য আপনার প্রয়োজন দই, মধু, লেবুর রস আর হলুদ। শ্যামলা ত্বক ফর্সা করার জন্য আপনাকে তিন চামচ দই এর সাথে 5 চামচ মধু এবং চার চামচ লেবুর রস ,সাথে কিছু পরিমাণ হলুদ নিতে হবে।

এরপর এগুলো মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে আপনাকে মুখে লাগাতে হবে। মুখে লাগানোর 30 মিনিট পর ধুয়ে ফেলতে হবে। এভাবে 15 দিন ব্যবহার ফলে আপনার শ্যামলা ত্বক ফর্সা হয়ে যাবে। বিশ্বাস না হলে আপনি ব্যবহার করে দেখতে পারেন।

ত্বক ফর্সা করার সবচেয়ে ভালো ক্রিম

ত্বক ফর্সা করার জন্য বাজারে ক্রিম এর অভাব নেই। কিন্তু সব কৃমি ত্বক ফর্সা করে না। আবার কিছু কিছু ক্রিম ব্যবহারের ফলে মানুষের ত্বক নষ্ট হয়ে যায়। ফলে তারা বিভিন্ন সমস্যায় ভুগে থাকেন। ত্বক ফর্সা করার জন্য প্রাকৃতিক পদ্ধতি অবলম্বন করাই ভালো।
তবে বর্তমানে বাজারে কিছু ভালো ক্রিম বের হয়েছে যা ত্বক ফর্সা করার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এ ক্রিম ব্যবহার করলে আপনার ত্বক ফর্সা হয়ে যাবে। তবে ”ভিটামিন ই” এই ক্রিমটি ত্বক ফর্সা করার জন্য সবচেয়ে কার্যকরী। এছাড়াও ওলে ক্রিম ত্বক ফর্সা করে থাকে।

কোন ভিটামিন ত্বক ফর্সা করে

ভিটামিন মানুষের ত্বকের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ভিটামিনের অভাবে মানুষের ত্বকের উজ্জ্বলতা কমে যায়। কিছু কিছু ভিটামিন রয়েছে যা ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে বা ত্বককে ফর্সা করতে খুবই কার্যকরী ভূমিকা পালন করে থাকে। ভিটামিন-ই তার মধ্যে একটি। ভিটামিন – এ এবং ভিটামিন – সি ত্বক ফর্সা করে এবং ত্বকের উজ্জলতা বৃদ্ধি করে। এই দুটি ভিটামিন গ্রহণের ফলে মানুষের ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পায়।

কি খেলে গায়ের রং ফর্সা হয়

অনেক মানুষ গুগলে সার্চ করে থাকে কি খেলে গায়ের রং ফর্সা হয়। প্রকৃতপক্ষে গায়ের রং ফর্সা করার কোন খাবার নেই। তবে কিছু কিছু ভিটামিন রয়েছে যা খেলে আপনার ত্বকের কিছুটা উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পায়। আপনার ত্বকের উজ্জলতা বৃদ্ধি করার জন্য আপনি ভিটামিন সি এবং ভিটামিন এ দুটি বেশি বেশি খেতে পারেন। কেননা এই দুটি ভিটামিন মানুষের ত্বকের উজ্জলতা বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে।

Maimuna Khan

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *